১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানের ময়লা-আবর্জনা দ্রুত সময়ের মধ্যে অপসারণ করা হবে – মেয়র নায়ার কবির

স্টাফ রিপোর্টার:

পৌরসভার আবর্জনা অপসারণ ও হস্তান্তর বিষয়ক কমিটির (অতিরিক্ত স্থায়ী কমিটি) এক সভা বুধবার সকালে মেয়রের বাসভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র মিসেস নায়ার কবির।

আবর্জনা অপসারণ ও হস্তান্তর বিষয়ক কমিটির আহবায়ক পৌর কাউন্সিলর আলহাজ্ব মিজানুর রহমান আনছারীর সভাপতিত্বে ও পৌর সচিব মোঃ সামছুদ্দীনের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত কাউন্সিলর মিনারা বেগম, নিলুফা ইয়াছমিন, কাউন্সিলর মীর মোঃ শাহীন, মোঃ কাওসার মিয়া, নির্বাহী প্রকৌশলী নিকাশ চন্দ্র মিত্র, হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মোহাম্মদ গোলাম কাউছার, সহকারী প্রকৌশলী কাউসার আহমেদ, বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা মুখলেছুর রহমান, উপসহকারী প্রকৌশলী সুমন দত্ত, ইদ্রিস মিয়া প্রমুখ।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবির বলেন, শহরের সুপার মার্কেটসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানের ময়লা আবর্জনা দ্রুত সময়ের মধ্যে অপসারণ করা হবে। এ কাজে সংরক্ষণ শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা- কর্মচারীদের কোন প্রকার গাফিলতী বা অবহেলা সহ্য করা হবে না। একাজে কারো কোন গাফিলতী পেলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণের হুশিয়ারী প্রদান করেন।

তিনি বলেন, ‘শুধুমাত্র পৌরসভা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করলে এই সমস্যার পুরোপুরি সমাধান হবে না। এজন্য পৌর নাগরিকদেরকেও সচেতন হতে হবে। খোলাস্থানে ও ড্রেনে অবাধে পলিথিন, হোটেল-রেস্তোরা, বাসা-বাড়ীর আবর্জনা ফেলা বন্ধ করতে হবে।’ পৌরসভার পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা প্রতিদিন এসব আবর্জনা পরিষ্কার করলেও পুনরায় একইরকম আবর্জনার স্তুপ জমে যায়। এক্ষেত্রে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা অনেকটা অসহায়।’ এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে তিনি শহরবাসীকে ময়লা আবর্জনা যত্রতত্র বা ড্রেনে ফেলা বন্ধ করার আহবান জানান।

তিনি বলেন, শহরের ড্রেনেজ ব্যবস্থা প্রতিবন্ধকতার অন্যতম কারণ হচ্ছে এই ময়লা আবর্জনা। জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেতে পৌর নাগরিকদেরকে খাল ও ড্রেনে ময়লা আবর্জনা ফেলা বন্ধ করার আহবান জানান। তিনি পৌর এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম গতিশীল করতে পৌর পরিষদ, পৌরসভার সকল কর্মকর্তা- কর্মচারী ও পৌর নাগরিকদের সহযোগিতা কামনা করেন।