৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে হতদরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার,
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা ভাইরাসের কারণে বেকার হয়ে ঘরে থাকা কর্মজীবী মানুষের মধ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।  বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের ফারুকী পার্কে সামাজিক দূরত্ব মেনে প্রত্যেক উপকারভোগীকে সাদা রঙের বৃত্তের মধ্যে দাঁড় করিয়ে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-খাঁন তাদের হাতে সামগ্রী তুলে দেন। ৩৫ জনের মধ্যে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ৩৫ জনের মধ্যে ২৬ জন পৌর এলাকার বাসিন্দা এবং বাকিরা প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষুক।

খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে প্রত্যেক পরিবারের জন্য ২০ কেজি চাল, ২ কেজি পেঁয়াজ, ২ কেজি তেল, ১ কেজি লবন, ২ কেজি ডাল, ৩ কেজি আলু, ১ কেজি চিনি, ২ কেজি আটা, ১ কেজি চিড়া, ১ কেজি মুড়ি, দুইটি সাবান এবং ১ প্যাকেট বিস্কুট।
খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়–য়া, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এবিএম মশিউজ্জামান, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট প্রশান্ত কুমার বৈদ্য ও সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মানুষকে ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। এতে করে খেটে খাওয়া মানুষ বেকার হয়ে গেছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে প্রকৃত হতদরিদ্রদের খুঁজে বের করে তাদের মধ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। সদর উপজেলার ১০০জন হতদরিদ্রের তালিকা থেকে ৩৫ জনের মধ্যে বৃহস্পতিবার এই সামগ্রী দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে ১০০টন চাল ও ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। তিনি বিশেষ কোন প্রয়োজন ছাড়া মানুষকে ঘর থেকে বের না হওয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত জেলায় ১৫২১জন হোম কোয়ারেন্টাইনে আছে।