১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জিপিএ-৫ এ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ এগিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার ফলাফলে জিপিএ-৫-এ এগিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ।

বুধবার ফলাফল ঘোষণার পর বিভিন্ন কলেজ ও কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এ বছর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ থেকে এক হাজার ২৩৫জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে এক হাজার ৪৪জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৭জন। এই কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে ৫জন, মানবিক বিভাগ থেকে তিন জন এবং বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৬৯জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। কলেজের পাসের হার ৮৪ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এক হাজার ২১জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ৮০৩জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন শিক্ষার্থী। পাশের হার ৭৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ডস স্কুল এন্ড কলেজ থেকে ৩২১ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ২৭২জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। তাদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে দুইজন ও মানবিক বিভাগ থেকে এক জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। পাসের হার ৮৪ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব অর্নাস কলেজ থেকে ২২১জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ১৭২জন পাস করেছে। পাসের হার ৭৭ দশমিক ৮৩ শতাংশ।
বিজয়নগর উপজেলার কাজী শফিকুল ইসলাম কলেজ থেকে ৬০১জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ৩৯১জন পাস করেছে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ০৭জন। পাসের হার ৬৫ দশমিক ১৭ শতাংশ।

জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার আশুগঞ্জ সার কারখানা কলেজ থেকে ১৪৪জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ১৪০জন পাস করেছে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২জন। এই কলেজের মানবিক বিভাগ থেকে ২ জন ও বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ১০জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। পাসের হার ৯৬ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

আশুগঞ্জ উপজেলার তিন্নি আনোয়ার মহিলা কলেজ থেকে ৪২জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ৪০ জন পাস করেছে। এই কলেজ থেকে কোন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পায়নি। পাসের হার ৯৫ দশমিক ২৪ শতাংশ।আশুগঞ্জ উপজেলার ফিরোজ মিয়া সরকারি কলেজ থেকে ২২৮জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ২১১জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে এক জন। পাসের হার ৯২ দশমিক ৫৪ শতাংশ।আশুগঞ্জ উপজেলার আব্বাস উদ্দিন খান সোহাগপুর মডেল কলেজ থেকে ১৫৭জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ১৩৩জন শিক্ষার্থী। পাসের হার ৮৪ দশমিক ৭১ শতাংশ।

জেলার নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর ব্যারিষ্টার জাকির আহমেদ কলেজ থেকে এবার ২১৭জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ২০৭জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

জেলার কসবা উপজেলার কসবা টি.আলী কলেজ থেকে ১৬৬জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ১৫৭জন। পাসের হার ৯৪ দশমিক ৫৮ শতাংশ।

জেলা শহরের ব্রাহ্মণবাড়িয়া ইউনাইটেড কলেজ থেকে ১৬৯ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ১৪৩জন। এই কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে এক জন শিক্ষার্থী। পাসের হার ৮৪ দশমিক ৬২।