১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

বহুল আলোচিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডাঃ মো. শাহ আলম ওএসডি

 

স্টাফ রিপোর্টার:

সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ধূমধামের সাথে মেয়ের বিয়ে দেয়ার দুইদিন পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডাঃ মো. শাহ আলমকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করে স্বাস্থ্য অধিদফতরে নেয়া হয়েছে।

গতকাল রোববার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব শারমিন আক্তার জাহান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে ওএসডি করা হয়।

একই প্রজ্ঞাপনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নতুন সিভিল সার্জন হিসেবে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (ইন্ডাস্ট্রিয়াল হেলথ) ডা. মোহাম্মদ একরাম উল্লাহকে পদায়ন করা হয়েছে। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের একাধিক ব্যক্তি জানান, সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলমের ওএসডির আদেশ প্রত্যাহার হতে পারে।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধকল্পে সারাদেশে জনসমাগম, মাহফিল, সমাবেশ ও সামাজিক অনুষ্ঠান করা সরকারিভাবে নিষেধ করা হলেও গত শুক্রবার (২০) মার্চ সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলম তার সরকারি বাসভবনে মহাধূমধামে তার কন্যা দন্ত চিকিৎসক শাননিন আলম মমোর বিয়ে দেন।

বিয়েতে তিন শতাধিক অতিথিকে আমন্ত্রণ করা হয়। সরকারি নির্দেশনা না মেনে নিজ কন্যার বিয়ের আয়োজন করায় সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলমের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় উঠে। তবে সিভিল সার্জন শাহআলম দাবি করেন, ঘরোয়া পরিবেশে তিনি মেয়ের আকদ হয়েছে।

এর আগেও গত ৩১ ডিসেম্বর রাতে ( থার্টি ফাস্ট নাইট) নববর্ষ উদযাপন করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল প্রাঙ্গনে মাইক লাগিয়ে গানের আসর ও আতশবাজি ফুটিয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছিলেন সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলম।