১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

নাসিরনগরে লবণের দাম বৃদ্ধি নিয়ে গুজব, চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা

নাসিরনগর সংবাদদাতা:

নাসিরনগরে পেঁয়াজের বাজারের আগুন থামতে না থামতেই নতুন করে লবণের বাজারে দাম বৃদ্ধির গুজবে লবণ কেনার ধুম পড়েছে। অন্যদিকে লবণের দাম বৃদ্ধির গুজব ও অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রির অভিযোগে আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিভিন্ন দোকানে অভিযান চালিয়ে ৪ ব্যবসায়ীকে ৪৭ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে,সোমবার রাত থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার পাড়া-মহল্লার মুদি দোকানে গুজব ছড়িয়ে পড়ে লবণের দাম বেড়েছে। আর গুজব দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে ১০ টাকা মূল্যের খোলা লবণ ৬০ টাকায় আর ৩৫ টাকার প্যাকেটজাত লবণ ১০০ থেকে ১২০ টাকায় বিক্রি হয়। আবার কোন কোন ব্যবসায়ী বেশী দামে বিক্রির জন্য লবণ মজুদ করে রাখেন বলেও অভিযোগ উঠে।এতে অধিকাংশ বড় থেকে ছোট দোকানের লবণ ফুরিয়ে যায়।

এদিকে লবণের দাম বৃদ্ধির গুজব ও অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ শুনে দুপুরে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত) ও নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা আক্তার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত বিভিন্ন বাজারে গিয়ে অভিযান চালিয়ে এ অভিযোগে চার ব্যবসায়ী উপজেলার সদরের দেবেন্দ্র চন্দ্র রায়ের ছেলে নান্টু রায়কে ২০ হাজার,বুড়িশ্বর ইউনিয়নের শ্রীঘর গ্রামের এরশাদ মিয়ার ছেলে জানু মিয়াকে ২ হাজার,গোকর্ণ ইউনিয়নের পাঠানিশা গ্রামের রহিম মিয়ার ছেলে বশির মিয়াকে ২০ হাজার ও জেঠাগ্রামের মনোরঞ্জন দাসের ছেলে কবির দাসকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং ব্যবসায়ীদের তাদের দোকানে বিক্রয়মূল্য ও মজুদ পণ্যের তালিকা টাঙানোর নির্দেশ দেন।

এছাড়াও কেউ অতিরিক্ত দামে লবণ বা অন্য কোন পণ্য বিক্রি করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত)। উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত) তাহমিনা আক্তার জানান অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রি করায় ওই চার ব্যবসায়ীকে হাতেনাতে আটক করা হয়েছে এবং সর্তক করে দিয়ে ৪৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

কসবায় ৯ জনকে জরিমানা