১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

সড়ক দ্রুত নির্মাণ দাবিতে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আশুগঞ্জ খাদ্য গুদাম (এলএসডির) চলাচলের জন্য রেলগেইট থেকে এলএসডি সংযোগ কাচাঁ রাস্তাটি দ্রুত নির্মাণ করার দাবিতে  মঙ্গলবার দুপুরে খাদ্যগুদাম সড়কে চাতাল কল মালিক সমিতি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ও উপজেলা কমিটির উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে জেলার মিল মালিক ও প্রান্তিক কৃষক ও শ্রমিকরা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা চাতাল কল মালিক সমিতি সভাপতি বাবুল আহম্মেদ, সাধারন সম্পাদক স্বপন ভূইঁয়া, আশুগঞ্জ উপজেলা চাতাল কল মালিক সমিতি সহ-সভাপতি দারুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক হেলাল সিকদার প্রমুখ।

এসময় বক্তরা বলেন ১৯৫৮-৬২ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ এলএসডি নির্মিত হয়। পরিত্যক্ত রেল লাইনের উপরের কাচাঁ মাটির রাস্তাটি বিগত ৫০ বছর যাবৎ আশুগঞ্জ এলএসডির খাদ্য শস্য লোড, আনলোড ও পরিবহনের কাজসহ স্থানীয়রা চলাচলের জন্য ব্যবহার করছেন। কাঁচা রাস্তাটি  যানচলাচলের একেবারেই অনুপযোগি।

সামান্য বৃষ্টি হলে লোড-আন লোডের জন্য ট্রাকসহ জনসাধাধান চলাচল করতে পারে না। আমরা মিল মালিকরা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা র্দীঘদিনের অনুরোধে ‘সারাদেশে পুরাতন খাদ্য গুদাম ও আনুষঙ্গিক সুবিধাদির মেরামত নতুন অবকাঠামো প্রকল্পে’ অধীনে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে আশুগঞ্জ এলএসডির কাচাঁ রাস্তাটি বিটুমিনাস কার্পেটিং জন্য কার্যাদেশ প্রদান করেন খাদ্য বিভাগ। কাজ শুরু হওয়ার রেলওয়ে একটি চক্র নির্মাণ কাজ বন্ধের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যা খুবই দুংখ জনক। দ্রুত রাস্তাটি কাজ শেষ করা। পাশপাশি সকল ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবি জানান। নতুবা লকডাউন শেষ হলে কঠোর কর্মসূচি হুমকি প্রদান করে মিল মালিক, প্রাপ্তিক কৃষক ও শ্রমিকরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সুবীর নাথ চৌধুরী জানান, এই রাস্তাটি খুবই গুরত্বর্পূণ। সড়কটি সংস্কার ও মেরামত করার জন্য র্দীঘদিন যাবৎ মিল মালিক ও স্থানীয় প্রতিনিধিসহ জনসাধারন দাবি জানিয়ে আসছিল। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে খাদ্য বিভাগ এই কাচাঁ রাস্তাটি বিটুমিনাস কার্পেটিং করার কার্যদেশ প্রদান করেছেন। রেলওয়ে কেন বিরোধিতা করছে বুঝতে পারছি না। আমরা পুরো বিষয়টি আমাদের কৃর্তপক্ষ চিঠি দিয়ে জানিয়েছি।