৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

পুকুর ভরাটের দায়ে তিনজনকে কারাদন্ড

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পরিবেশ আইন অমান্য করে পুকুর ভরাটের অভিযোগে ৩ব্যক্তিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বুধবার দুপুরে শহরের পূর্বপাইক পাড়া রামঠাকুর মন্দির এলাকার পুকুরে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানকালে পরিবেশ আইন অমান্য করে পুকুর ভরাট করার দায়ে পরিবেশ আইন ১৯৯৫ সংশোধন আইনের ১০ এর ৬(ঙ) ধারায় শহরের পূর্ব পাইক পাড়া এলাকার পুকুর মালিক মোঃ শিহাব চৌধুরী (৩৯)কে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং অপর দুই অংশিদার আমিরুল ইসলাম (৫৬) ও শেখর পালকে (৫৫)কে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এসময় অভিযানে নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রোটগন জানান, এ ব্যাপারে তাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। তবে এখনো মোঃ মানিক মিয়া পুকুরে পাড়ে পাইলিং কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়ুয়া বলেন, আমাদের কাছে সুনিদিষ্ট অভিযোগ ছিল শহরের প্রাণকেন্দ্র পূর্বপাইকপাড়া রামঠাকুর মন্দিরের পুকুরটি কতিপয় কিছু ব্যক্তি অবৈধভাবে দখল করছেন। মাটি ভরাট করে তারা অবৈধভাবে দখল কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে দুপুরে পরিবেশ অধিদপ্তর, সদর উপজেলা ভূমি কমিশনার নিবার্হী ম্যাজিষ্ট্রোষ্টসহ ঘটনাস্থলে এসে অভিযোগের সতত্যা পেয়েছি। সেজন্য অপরাধের ধরণ হিসেবে একজনকে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ২জনকে তিনমাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। পুকুর ভরাটের বিরুদ্ধে আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।
এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক বিসল চক্রবতী জানান, পুকুর ভরাটের অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তর আইনে এই ভ্রামমান আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। তাদেরক আইন অনুযায়ী যথাযথ শাস্তি দেয়া হয়েছে।

অভিযান কালে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশ্রাফ আহামেদ রাসেল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়ুয়া, সহকারী কমিশনার ভূমি এ.বি.এম. মশিউজ্জামান, পরিবেশ অধিদপ্তর ব্রাহ্মণবাড়িয়া অঞ্চলের সহকারী পরিচালক বিসল চক্রবর্তী, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ হুমায়ন রশিদ সহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।