৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৭ই মে, ২০২১ ইং

বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন অফিসে হামলার উস্কানিদাতাসহ গ্রেপ্তার-২০

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের হরতাল চলাকালে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের অফিসে হামলার উস্কানিদাতা মোঃ শামীম মিয়া-(২৮)সহ ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জড়িত আরো ২০জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার রাতে জেলার বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এনিয়ে জেলায় রোববার পর্যন্ত তান্ডবের ঘটনায় ৮২জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে গনমাধ্যমকর্মীদের কাছে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তি এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিসে হামলার মূল উস্কানিদাতা গ্রেপ্তারকৃত শামীম মিয়া সদর উপজেলার বুধল ইউনিয়নের চান্দিয়ারা গ্রামের ফুল মিয়ার ছেলে। শনিবার রাতে চান্দিরা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ লোকমান হোসেন জানান, গত ২৮ মার্চ হেফাজতের হরতাল চলাকালে গ্রেপ্তারকৃত শামীম মিয়া ফেসবুকে তার নিজস্ব আইডি থেকে সদর উপজেলার ঘাটুরার বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিসে হামলা করার অনুরোধ জানান। এর পরই বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিসে ব্যাপক হামলা চালান হেফাজতের নেতা-কর্মীরা।

এ সময় হামলাকারীরা অফিসটিতে পেট্টোল বোমা নিক্ষেপ করে ও অফিসে থাকা ১০/১২টি গাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দেয়। ফলে ওইদিন রাত থেকে পরদিন বিকেল পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে গ্যাস সংযোগ বন্ধ ছিল এবং সাধারণ মানুষ বাড়ি-ঘরে রান্নার কাজ নিয়ে পড়েন দুর্ভোগে পড়েন। ওই ঘটনায় বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির পক্ষ থেকে সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

এদিকে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা থেকে গনমাধ্যম কর্মীদের কাছে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তান্ডবের ঘটনায় জেলার বিভিন্ন থানায় মোট ৪৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে সদর মডেল থানায় ৪৩টি, আশুগঞ্জ থানায় ৩টি, সরাইল থানায় ২টি এবং আখাউড়া রেলওয়ে থানায় একটি। ৪৯ টি মামলায় এজাহারনামীয় ২৮৮ জনসহ অজ্ঞাতনামা ৩৫ হাজার লোককে আসামি করা হয়। এসব মামলায় শনিবার পর্যন্ত ৮২জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান বলেন, পুলিশ আসামীদের ভিডিও ফুচে ও ছবি দেখে তাদেরকে গ্রেপ্তার করছে। এছাড়া ও যাদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে। তিনি বলেন, শনিবার রাত পর্যন্ত তান্ডবের ঘটনায় ৮২জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।