৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৭ই মে, ২০২১ ইং

তিন বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় সাড়ে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ভিকটিমের পরিবারের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ওই শিশুকে উদ্ধার করে শুক্রবার রাতে বাহ্মণবাড়িয়া ২৫০শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ভর্তি করেছে। এরআগে শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের টানচাঁনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পার্শবর্তী নোয়াগাঁও গ্রামের আরু মিয়ার বখাটে ছেলে ইউনুছ মিয়া শিশুটিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ উঠে। ওই শিশুর বাবা নুর আলম জানায়, শুক্রবার জুম্মার নামায পড়ার জন্য আমিসহ বাড়ির অন্যান্য লোকজন মসজিদে চলে যায়।

এ সময় তার শিশুটি বাড়ির উঠানে খেলা করছিল এবং তার মা ঘরের রান্নার কাজ করছিল। অনেকক্ষণ ধরে তাকে দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন অনেক খুঁজাখুঁজির পর বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে গিয়ে দেখেন শিশুটি চিৎকার করছে। এসময় পার্শবর্তী নোয়াগাঁও গ্রামের আরু মিয়ার বখাটে ছেলে ইউনুছ মিয়াকে তার সঙ্গে দেখতে পান। শিশুটি আত্মরক্ষায় চিৎকার শুরু করলে তাকে বাঁচাতে ও ইউনুছ মিয়াকে আটক করতে লোকজন এগিয়ে গেলে সে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে সন্ধ্যায় এই খবর পেয়ে আখাউড়ার ধরখার ফাঁড়ির পুলিশ গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে ২৫০শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ভর্তি করা হয়।

ধরখার পুলিশ ফাঁড়ির এস.আই মো. আবুল হোসাইন বলেন, আমরা খবর পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা জন্য ভর্তি করা হয়। শিশুটির পরিবারের অভিযোগ, তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে। কিন্তু ডাক্তারী পরীক্ষার ফলাফল আসার পর বিস্তারিত জানা যাবে। তবে এ ঘটনায় এখন পযর্ন্ত পরিবারের লোকজন থানায় কোন মামলা দায়ের করেনি বলে জানায়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালের গাইনী বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. ফৌজিয়া আক্তার বলেন, আমরা শিশুটিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছি। তার ফলাফল হাতে পেলে মন্তব্য করা যাবে’। ফলাফল হাতে না আসা পর্যন্ত কিছু বলতে পারবো না।