১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

ব্যাংক থেকে সাংবাদিকের টাকা চুরি

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে বের হওয়ার সময় দৈনিক যায়যায়দিনের কসবা উপজেলা প্রতিনিধি ও কসবা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহআলম চৌধুরীর পকেট থেকে ২০ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে গেছে একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্র।

মঙ্গলবার সকালে সোনালী ব্যাংক, কসবা উপজেলা শাখায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জনমনে প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

সাংবাদিক মোঃ শাহআলম চৌধুরী জানান, তিনি মঙ্গলবার সকালে সোনালী ব্যাংক কসবা শাখা থেকে (তার ব্যক্তিগত হিসাব নম্বর থেকে) ২০ হাজার টাকা উত্তোলন করে প্যান্টের পকেটে রাখেন। পরে তিনি ব্যাংকের ব্যবস্থাপকের কক্ষে গিয়ে ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নুরুল হকের কাছে কসবা প্রেসক্লাবের হিসাব নম্বরের একটি প্রতিবেদন (স্ট্যাটম্যান) চান। পরে ব্যাংক থেকে বের হয়ে দেখেন পকেটে নেই। চোরেরা তার পকেট থেকে টাকা নিয়ে গেছে।

পরে তিনি পুনরায় ব্যাংকে শাখা ব্যবস্থাপককে বিষয়টি অবহিত করেন। খবর পেয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরাও ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি অবহিত হন।

এ ব্যাপারে সাংবাদিক মোঃ শাহআলম চৌধুরী বলেন, পারিবারিক কাজের জন্য তিনি তাঁর ব্যক্তিগত হিসাব নম্বর থেকে ২০ হাজার টাকা তুলেন। টাকাটা পকেটে রেখে প্রেসক্লাবের হিসাব নম্বরের একটি প্রতিবেদন আনার জন্য ম্যানেজারের কাছে যান। পরে ব্যাংক থেকে বের হয়ে দেখেন তার প্যান্টের পকেটে টাকা নেই।

এ ব্যাপারে কসবা উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ হুমায়ূন কবির বলেন, ব্যাংক থেকে টাকা চুরি করে নিয়ে যাবে এটি অত্যন্ত দুঃখজনক। করোনার এ পরিস্থিতিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে আরো সক্রিয় ভূমিকা এবং আইন শৃংখলা বাহিনীকে আরো তৎপর হতে হবে।

এ ব্যাপারে সোনালী ব্যাংক কসবা শাখার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নুরুল হক বলেন, ব্যাংক থেকে টাকা তুলে বের হওয়ার সময় চোর টাকা নিয়ে গেছে, এতে আমাদের দুঃখ প্রকাশ করা ছাড়া কিছুই করার নেই। তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে গত তিনদিন ধরে ব্যাংকে গ্রাহকদের ভীড় বেড়েছে।

এ ব্যাপারে কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলমগীর ভূইয়া বলেন, সাংবাদিকের চুরি হওয়া টাকা উদ্ধারের জন্য পুলিশ চেষ্টা করছে।