৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

আশুগঞ্জে এক ব্যক্তি কে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা , যুবক গ্রেপ্তার

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে পূর্ব বিরোধের জের ধরে থার্মেক্স গ্রæপের কর্মকর্তা মাহবুবুল আলম-(৩৮) কে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে প্রতিপক্ষের লোকেরা। গত শুক্রবার রাতে আশুগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের খারাসার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ সালাহউদ্দিন-(২৬) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, খারাসার গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) যুগ্ম পরিচালক মাসুদ আলমের ছোট ভাই মাহবুবুল আলম নরসিংদী জেলার থার্মেক্স গ্রæপের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম)। পরিবার পরিজন নিয়ে তিনি নরসিংদীতেই বসবাস করেন।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটিতে তিনি গ্রামের বাড়িতে আসেন। খারাসার গ্রামের জাকির হোসেনের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মাহবুবুল আলমের পরিবারের বিরোধ চলে আসছিল। শুক্রবার রাতে মাহবুবুল আলম তার ছেলে মাইয়াস আলমকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি থেকে উপজেলার বড়তল্লা গ্রামে যাওয়ার জন্য বের হলে প্রতিপক্ষ জাকির হোসেন তার সহযোগীদের নিয়ে অতর্কিতভাবে মাহবুবুল আলমের উপর হামলা করে। হামলাকারীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় কোপ দিলে গুরুতর আহত হন মাহবুব।

তার চিৎকারে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে আশংকাজনক অবস্থায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এই ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। হামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে শনিবার দুপুরে সালাহ উদ্দিন নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।