১লা শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ১৬ই জুলাই, ২০২০ ইং

আখাউড়ায় ২ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ ও নিন্দা

 

আখাউড়ায় প্রতিনিধিঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় জেএসসি পরীক্ষায় নকলের সংবাদ প্রকাশ করায় দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে আখাউড়ার সাংবাদিক সমাজ।  মঙ্গলবার দুপুরে আখাউড়া টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন কার্যালয়ে এক জরুরী সভায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়। প্রতিবাদ সভায় অবিলম্বে এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়।

গত সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিজ্ঞ চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আয়েশা আক্তারের আদালতে নিউএইজ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি, দৈনিক যায়যায়দিন পত্রিকার আখাউড়া প্রতিনিধি ও আখাউড়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী হান্নান খাদেম এবং দৈনিক যুগান্তর ও ডেইলী অবজারভার পত্রিকার আখাউড়া প্রতিনিধি প্রেসক্লাবের সভাপতি মহিউদ্দিন মিশু’র বিরুদ্ধে এ মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়।

১৪ নভেম্বর জেএসসি’র গণিত পরীক্ষায় আখাউড়া রেলওয়ে সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে শিক্ষকদের সহায়তায় নকলের সংবাদ জাতীয় দৈনিক যুগান্তরসহ বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদে ক্ষিপ্ত হয়ে ২৫ দিন পর মনিয়ন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কাজী ইকবাল বাদী হয়ে ওই সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে এ মিথ্যা মামলা করেন।

আখাউড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আলাহাজ্ব মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক নাসির উদ্দিন, কাজী মফিকুল ইসলাম, মোঃ সাইফুল ইসলাম, বাদল আমিন, সফিকুল ইসলাম খান, ফজলে রাব্বি, মোঃ শরীফুল ইসলাম, জালাল হোসেন মামুন, মোঃ শফিকুল ইসলাম রনি, ময়নুল ইসলাম, কবি আফজান খান শিমুল, শেখ মনির হোসেন নিজাম, আবীর মোহাম্মদ, জুয়েল মোজাদ্দেদী, সেজান খান, সাইমুন মিয়া প্রমুখ।

অবিলম্বে এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে পরবর্তীতে মানববন্ধনসহ কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার হুঁিশয়ারি দেন বক্তারা।

উল্লেখ্য যে, সদ্য সমাপ্ত হওয়া জেএসসি পরীক্ষায় আখাউড়ায় অসাধু উপায় অবলম্বনের দায়ের ২ পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে। অপরদিকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় প্রক্সি দেওয়ার অভিযোগে ১৯ পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার এবং দুই স্কুল শিক্ষিকাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তাহমিনা আক্তার রেইনা।