Advertisement

ব্রাহ্মণাড়িয়ায় রুমিন ফারহানাকে ছাত্রলীগের ধাওয়া

NewsBrahmanbaria

এই আর্টিকেল টি ২৯৫।

স্টাফ রিপোর্টার

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে উপজেলা বিএনপি আয়োজিত সভায় যোগদান শেষে ঢাকায় ফেরার পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল উপজেলা সদরের উচালিয়া পাড়া এলাকায় বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য ও দলটির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-আন্তজার্তিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানার প্রাইভেটকারকে লক্ষ্য করে ধাওয়া করেছেন উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। শনিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ তৎপড় থাকায় অল্পের জন্যে হামলার হাত থেকে বেঁচে যান তিনি। এর আগে একটি প্রাইভেটকারে যোগে আশুগঞ্জ সভায় যোগদান শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল উপজেলা সদরের গরুবাজার এলাকায় উপজেলা বিএনপি আয়োজিত সভায় যোগদেন তিনি।

এসময় ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, বর্তমান সরকার এদেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটে নিয়ে বিদেশে পাচার করেছে। বিএনপি ক্ষমতায় এলে সকল লুটপাটের হিসাব নিকাশ নেওয়া হবে। তিনি বলেন, আপনারা এদেশের মানুষের প্রতি যে অত্যাচার করছেন। নির্যাতন করেছেন আগামী ১শ বছরেও আওয়ামীলীগ আর ক্ষমতায় আসতে পারবেন না।

সরাইলের উপ-নির্বাচন প্রসঙ্গটেনে রুমিন ফারহানা বলেন, সরাইলের মানুষ আপনাদেরকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। উপ-নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র গুলোতে কুকুর ঘুমিয়েছে। আগামী দিনেও আপনাদেরকে একইভাবে প্রত্যাখ্যান করবে।

এদিকে তার আগমনের খবর পেয়ে সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সরাইল উচালিয়া পাড়া মোড়ে জরো হয়। এ সময় মহু-মহু স্লোগান দিয়ে পুরো এলাকায় প্রতিবাদ মিছিল করেন। পরে তার গাড়ীটি পুলিশ প্রহরায় উচালিয়া পাড়া মোড় আসা মাত্রই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা গাড়ীটিকে ধাওয়া করেন। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনে গাড়ীটিকে নিরাপদে স্থানত্যাগ করার সুযোগ করে দেন।

এ সময় সরাইল ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ শরিফ উদ্দিন বলেন, ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা সরাইল-আশুগঞ্জের কেউ নন। তিনি এই এলাকার বহিরাগত। প্রায়শই সরাইল এলাকার এসে তিনি সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারে লিপ্তহন। পাশাপাশি সরাইল আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগকে নিয়ে কটুক্তি করেছেন। তার প্রতিবাদে আমরা তাকে প্রতিহত করার চেষ্টা করেছি। আগামীদিনেও একইভাবে তার মিথ্যারচারকে প্রতিহত করার ঘোষণা দেন এ ছাত্রলীগ নেতা।

এ সময় অন্যানের মধ্যে সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সানাউল্লাহ সেলু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইশতিয়াক আহমেদ বাপ্পি সহ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে সরাইল থানার ডিউটি অফিসার এসআই আলম জানান, আসলে বিষয়টি ধাওয়া নয়। দু পাশে নেতাকর্মীরা জড়ো হয়েছিল পুলিশ তাদেরকে সরিয়ে রুমিন ফারহানার গাড়িটিকে যাওয়ার সুবিধা করে দেয়া হয়েছে।

 

Advertisement

Sorry, no post hare.

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com