Advertisement

বাংলাদেশে কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়, অপরাধ করলে তার বিচার হবে – আইনমন্ত্রী

NewsBrahmanbaria

এই আর্টিকেল টি ১৯৪।

নিউজ ডেস্ক,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) বিকালে উপজেলার আজমপুর রেলস্টেশন চত্বরে আখাউড়া উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের আয়োজনে এ দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক এমপি। তিনি আখাউড়া-সিঙ্গারবিল পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়কের মেরামত কাজ উদ্বোধন করেন।

এসময় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক নোবেল বিজয়ী ডা. ইউনুস এর বিচার প্রসঙ্গে বলেন, বাংলাদেশে কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়। কেউ অপরাধ করলে তার বিচার হবে। আমরা দেখেছি বঙ্গবন্ধুর খুনিদেরকে ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স দ্বারা বিচার থেকে বাচিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল। সেই জামানা আর নাই। এখনের জামানা ভিন্ন। এখন বাংলাদেশে আইনের শাসন আছে।

হিলারি ক্লিনটনকে ইঙ্গিত করে আনিসুল হক বলেন, একজন দুইবার চেষ্টা করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে পারেননি। যার নির্বাচনে ডঃ ইউনুস টাকা দিয়েছিলেন উনি এখন ডঃ ইউনুসকে বাঁচানোর সংগ্রামে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে বলছেন। এটা কিসের সংগ্রাম। বাংলাদেশের মানুষের সাথে সংগ্রাম। বাংলাদেশের মানুষ বিচার চায় এটা কি অন্যায় প্রশ্ন তাঁর। আমাদেরকে এটা অপমান করার সামিল। আমরা সুষ্ঠু বিচার করতে জানি। উনি (ডা. ইউনুস) যদি অন্যায় না করে থাকেন তাহলে তিনি খালাস পাবেন। আর যদি অনুচিত হয়, বিজ্ঞ বিচারক বিচার করবেন। বাংলাদেশে বিচার বিভাগ স্বাধীন।

আইনমন্ত্রী আরোও তিনি বলেন, কোন উছিলায় বাংলাদেশকে অপমান করবেন, বিচার বিভাগকে অপমান করবেন সেই চেষ্টা বন্ধ করুন। এছাড়াও নির্বাচনে খরচ করার জন্য সরকার সার্বজনীন পেনশন স্কীম করেছে।

এসময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের সমালোচনা করে আইনমন্ত্রী আরোও বলেন, মাথায় গিলু না থেকে অন্য কিছু থাকলে কেউ এসব কথা বলে।

সভা শেষে সাইবার নিরাপত্তা আইন সম্পর্কে টিআইবি মন্তব্য সম্পর্কে সাংবাদিকদের আনিসুল হক বলেন, টিআইবি যা বলেছে এর কোনটায় সত্য নয়। সাংবাদিকরা এবং জনগণ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পাশে সিকিউরিটি আইন রেখে পড়লে তারা বুঝতে পারবে কতটা পরিবর্তন করা হয়েছে। এবং যেখানে উনাদের (টিআইবি) আপত্তি ছিল সেগুলো দূর করা হয়েছে।

উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রাশেদুল কাওছার জীবন, উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান ভূইয়া স্বপন প্রমুখ।

 

Advertisement

Sorry, no post hare.

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com