Advertisement

চাঁদাবাজি ও দূর্নীতিসহ সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে নোঙর-জেলার সভাপতি, সাধা: সম্পাদক, নিবার্হি সদস্য বহিস্কার

NewsBrahmanbaria

এই আর্টিকেল টি ৩৬৮।

নদী ও প্রাণ-প্রকৃতি সুরক্ষা সামাজিক সংগঠন নোঙর-ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ কতিপয় সদস্যের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ, ব্যাক্তি স্বার্থে সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার যোগ্য সদস্যদের বঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে।

এছাড়াও জেলা শহরের খাল রক্ষা করার আন্দোলনের নামে চাঁদাবাজি করার সময় গণধোলাইর শিকার হওয়াতে সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্ট করে সংগঠনকে বিতর্কিত ও অকার্যকর করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


এ ছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রেরিত ই-মেইলের জবাব না দিয়ে স্ব-পদে বহাল থেকে সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপ অব্যাহত রাখার কারনে শামীম আহমেদ, খালেদা মুন্নি, সোহেল আহাদ, সুশান্ত পাল কে জেলা কমিটির সকল পদ ও কর্মকান্ড থেকে অপসারণ করার সিদ্ধান্ত নীতিগত ভাবে গ্রহণ করে নোঙর কেন্দ্রীয় কমিটি।

গত ১১ মার্চ ২০২৩, শনিবার, জেলা সদরের স্থানীয় বালিকা বিদ্যালয় মিলনায়তনে নোঙর-ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২৩ তারিখে সম্মেলনে উত্থাপিত মোট বাজেটের ৮৩ হাজার টাকার হিসাবের আর্থিক অনিয়ম উঠে আসে।

তাই প্রাপ্ত তদন্ত ও তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে নোঙর কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যালয়ে নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে অদ্য ৪ এপ্রিল ২০২৩, মঙ্গলবার এক জরুরী সভায় গ্রণকৃত সিদ্ধান্ত মোতাবেক উপরোক্ত গুরুতর অভিযোগের দায়ে শামীম আহমেদ (জেলা শাখার সভাপতি), খালেদা মুন্নি (সাধারণ সম্পাদক), সোহেল আহাদ (নির্বাহি সদস্য), এবং সাধারণ সদস্য সুশান্ত পাল কে গঠনতন্ত্রের অনুচ্ছেদ ৯ এর (ক), (খ), (ঞ), (ণ), (ত), (থ), (ধ) ধারা অনুযায়ী ই-মেইলের মাধ্যমে নোঙর-ব্রাহ্মলবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, নিবার্হি সদস্য এবং সাধারণ সদস্য পদ থেকে আজীবনের জন্য বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত চুরান্ত হয়।

তথ্য সূত্র : নোঙর নিউজ

Advertisement

Sorry, no post hare.

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com