Advertisement

বিজয়নগর হাওরবাসীর ভাগ্য বদলাবে শেখ হাসিনা সড়ক

NewsBrahmanbaria

এই আর্টিকেল টি ৪৪।

নিউজ ডেস্ক,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলাবাসীর স্বপ্ন ছিলো হাওরের বুক চিড়ে পিচঢালা পথে উন্নত হবে সেখানকার মানুষের জীবনযাত্রার মান। তবে বহু বছর পরে হলেও হাওরের বুকে এখন কাজ শেষের পথে উপজেলাবাসীর স্বপ্নের সড়ক। সে সড়কটির নামকরণ করা হয়েছে শেখ হাসিনা সড়ক। জেলা শহরের শিমরাইলকান্দি থেকে বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের সীমানা পর্যন্ত সাড়ে ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কের নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে ১৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে বহুল কাঙ্খিত এ সড়কটি। পুরো বিজয়নগরবাসীর ভাগ্য বদলে দেবে তিতাস নদী ও লইস্কা বিলের ওপর নির্মিত এ সড়কটি।

২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে দুটি বিশালাকার সেতুসহ এ সড়কপথ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়। তবে ভূমি অধিগ্রহণসহ নানা জটিলতায় কাজের বিলম্ব হয়। এতদিন সরাসরি সংযোগ সড়ক না থাকার কারণে বিজয়নগরের মানুষদের সরাইল অথবা আখাউড়া উপজেলা হয়ে ৩৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে আসতে হতো। এছাড়াও পত্তন, বিষ্ণুপুর ও চম্পকনগরসহ কয়েকটি ইউনিয়নের বাসিন্দাদের বর্ষায় নৌকায় করে হাওর পাড়ি আর শুস্ক মৌসুমে পায়ে হাটা ছাড়া কোন উপায় ছিলোনা। সড়কটি পুরোপুরি চালু হলে স্থানীয়দের জীবনযাত্রার মান বাড়ার পাশাপাশি প্রসার ঘটবে ব্যবসা-বাণিজ্যের, সমৃদ্ধ হবে অর্থনীতি।

স্থানীয় ও এ সড়কে যাতায়াত করা যাত্রীরা বলেন, আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আসলে বর্ষায় নৌকায় করে হাওর পাড়ি আর শুস্ক মৌসুমে পায়ে হেটে আসা ছাড়া কোন উপায় ছিলো না। কিন্তু এখন স্বল্প দূরুত্বের সড়ক পাড়ি দিয়েই শহরে পৌঁছাতে পারছেন তারা। বিশেষ করে কৃষক ও ব্যবসায়ীরা দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যে প্রসারের পাশাপাশি উৎপাদিত শাকসবজি ও ফলমূল জেলা শহরের হাট-বাজারে তুলতে পারছেন। এসময় স্থানীয়রা এ সড়কের অবশিষ্ট কাজ দ্রুত শেষ করার দাবী জানান।

এদিকে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার (এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী মো: আব্দুল মান্নান বলেন, এ শেখ হাসিনা সড়কটির ফলে ওই অঞ্চলের মানুষের শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অর্থনীতিসহ সবখাতেই আমুল পরিবর্তনে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনের স্থানীয় সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী জানান, সড়কটির ফলে এ অঞ্চলের আত্মসামাজিক উন্নয়ন হবে। সেখানকার কৃষিপণ্য, ফলজাতসহ অন্যান্য পণ্যের বাজারজাতকরণের ও বিশেষ করে যাতায়াতের সুবিধায় অবদান রাখবে। সেখানকার জনগণের আশা আকাঙ্খার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে এ শেখ হাসিনা সড়কটি।

 

Advertisement

Sorry, no post hare.

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com