Advertisement

শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হলেন আশুগঞ্জের নাজিমুল হায়দার

NewsBrahmanbaria

এই আর্টিকেল টি ১১১৩।

স্টাফ রিপোর্টার,

প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৯-এ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হয়েছেন আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজিমুল হায়দার। প্রাথমিক শিক্ষায় বিশেষ অবদান রাখার জন্য গত বুধবার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজিমুল হায়দারকে জেলায় শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে ঘোষণা করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মোঃ নাজিমুল হায়দার ইউএনও হিসেবে চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল তারিখে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ উপজেলায় যোগদানের পর পরই তিনি প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে কাজ শুরু করেন।

তিনি উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোর উন্নয়ন, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের শতভাগ উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ, ঝড়েপড়া রোধ, ব্যক্তিগত ও জনগনের সহযোগীতায় বিদ্যালয়ের আবাসন সমস্যার সমাধান, শ্রেণী কক্ষে শিশুরা বসার জন্য টুল ও বেঞ্চ তৈরি, শিক্ষার নীতি ও দিক নির্দেশনা মূলক তথ্যবহুল বই প্রকাশ, বিদ্যালয়কে আকর্ষনীয় করা, শিক্ষার উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ, অধীনস্থ কর্মকর্তাদের বিদ্যালয় পরিদের্শনে উদ্বুদ্ধকরন, বিদ্যালয়ের ভবন ও অন্যান্য সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণ, কাব গঠন, আন্তঃ বিদ্যালয় কাব সমাবেশের আয়োজন।

প্রাথমিক শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব সম্পর্কে অভিভাবককে সচেতন করা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন, গরীব শিশুদের খাতা, কলম, পেন্সিল প্রদানের ব্যবস্থা, শিক্ষকদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও দিকনির্দেশনা, বৃত্তি প্রাপ্ত এবং পরীক্ষায় ভালো ফলাফল অধিকারীদের জন্য পুরস্কারের ব্যবস্থা করার মাধ্যমে উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখেন।

তার এসব কর্মকান্ড নিয়ে ইতিপূর্বে স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিকে একাধিক সংবাদ প্রকাশিত হয়।

উল্লেখ্য, কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার উপজেলার তালতলা গ্রামের বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক মাস্টারের ছেলে মোঃ নাজিমুল হায়দার। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। তিনি ৩০ তম বিসিএস (প্রশাসন) এর মাধ্যমে ২০১২ সালের জুন মাসে তার চাকুরী জীবন শুরু করেন।

Advertisement

Sorry, no post hare.

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com