১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ. ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ ইং

আওয়ামীলীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জেলা আওয়ামীলীগের মাসব্যাপী শোক কর্মসূচীর অংশ হিসেবে জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কার্য নির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশেষ বর্ধিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য-(৩১২) উম্মে ফাতেমা নাজমা আজাদ ওরফে শিউলী আজাদ।

বিশেষ বর্ধিত সভায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলা, আশুগঞ্জ উপজেলা, নবীনগর উপজেলা ও নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন ও জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠানের বিষয়ে আলোচনা হয় ও আগামী ২৯ অক্টোবর জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

বিশেষ বর্ধিত সভায় জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগন, বিভিন্ন উপজেলায় আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নে নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানগন, বিভিন্ন পৌরসভায় আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নে নির্বাচিত মেয়রগন উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কার্য নির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি বলেন, আগষ্ট মাস শোকের মাস। এই আগষ্টে জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়। এই আগষ্টে গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল। সেদিন আইভি রহমান সহ ২৪ জনকে দিনের আলোতে হত্যা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, “বুকে ব্যাচ লাগিয়ে অথবা তোরণে, ব্যানারে বঙ্গবন্ধুকে ধারন করলেই চলবেনা। আমরা বড় দুঃসময়ে এসে দাঁড়িয়েছি। আমরা যদি পরাজিত হই, আওয়ামীলীগ যদি পরাজিত হয়, তাহলে দেশ পরাজিত হবে। আমরা আবারো ৭৫ এর পূর্বের অবস্থায় ফিরে যাবে। আমরা বিজয়ী হলে দেশ কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছাবে।
এজন্য আমরা যারা নিজেদের মুজিব সৈনিক বলে দাবি করি, আমাদের আর কোনো কাজ নেই। আমরা শুধু মনোযোগ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী, কারাগারের রোজনামচা ও বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণগুলো শুনে বঙ্গবন্ধুকে মনেপ্রাণে ধারণ করার চেষ্টা করি।

তিনি বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার কর্মী। এটাই আমাদের বড় পরিচয়। তিনি বলেন, আগামী ২০২৩ সালে অথবা ২৪ সালের শুরুতে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনকে ঘিরে গভীর ষড়যন্ত্র হবে। এই ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। আওয়ামীলীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে পৃথিবীর কোনো শক্তি নেই আমাদের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে পারবে না।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com