৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় যুবককে কুপিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় সুমন মিয়া (৩৭) নামে এক সাবেক প্রবাসী সাংবাদিক কে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। গত ১ (আগষ্ট) রবিবার সকালে জেলার পৌর শহরের দক্ষিণ পৈরতলা বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহত সুমন মিয়ার ভাই টিপু সুলতান বাদী হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

আহত সুমন মিয়া শহরের পৈরতলা এলাকার শিশু মিয়ার ছেলে এবং তিনি এশিয়ান টেলিভিশনের সৌদি মক্কা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। হামলাকারীরা হলেন, মাদক ব্যবসায়ী গোলাপ মিয়া, মুকলেস মিয়া, মান্নান, আবু বকর ও বাগিনা সাব্বির।

একটি সূত্রে জানা যায়, শহরের পৈরতলা এলাকার আবু শামা মিয়ার ছেলে গোলাপ মিয়া ও তার ভাই মুখলেস মিয়াসহ চার ভাই র্দীঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। তাদের ভইয়ে কেউ কথা বলতে সাহস পাই না।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, একই এলাকার শিশু মিয়ার ছেলে সুমন মিয়ার বাড়ির সামনে মাদক বিক্রি করতে দেখে এলাকার আবু শামা ছেলে মুখলেস মিয়া। তখন সুমন মিয়া বাধা দিলে তাকে হুমকি দেয় মাদক ব্যবসায়ীক মুখলেস মিয়া। এর কিছুক্ষণ পর তার চার ভাই গোলাপ মিয়া, মান্নান মিয়া, আবু বকর ও বাগিনা সাব্বির নিয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ সুমন মিয়া উপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় মারাত্মক ভাবে আহত সুমন মুহূর্তেই মাটিতে লুটিয়ে পরেন। এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে মাদক ব্যবসায়ীরা তখন পালিয়ে যায়। পরে আহত সুমন মিয়া কে উদ্ধার করে স্থানীয়রা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে।

এলাকাবাসী ও আহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, হামলাকারীদের বিরুদ্ধে এর আগেও হত্যা, বাংলাদেশ -ভারত চারলেন প্রকল্পের কাজে চাঁদাবাজী ও মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধের বিভিন্ন মামলা রয়েছে। এসব মামলায় তারা কয়েকবার গ্রেফতার হলেও পরে জামিনে বেরিয়ে এসে ফের এরকম কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম বলেন, “অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”