১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

বিজয়নগরে বৃদ্ধাকে মারধর

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে মেয়ের দেবরদের মারধরে সাহেরা খাতুন (৭০) নামের এক বৃদ্ধা গুরুতর আহত হয়েছেন। মারধরে ওই বৃদ্ধার কোমরের হাড় ভেঙে গেছে বলে জানিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

শুক্রবার রাতে উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের মনিপুর গ্রামের আতকাপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। সাহেরা খাতুন ওই এলাকার ইউনুছ মিয়ার স্ত্রী। বৃদ্ধা সাহেরা খাতুন ছাড়াও মারধরে আহত হয়েছেন তার মেয়ে মুনিয়া বেগম (২২)।

হাসপাতালে বৃদ্ধার স্বজনরা জানান, সাহেরা খাতুনের মেয়ে শিরিন বেগমকে প্রতিবেশী গাজী দফাদারের ছেলে জিয়াউর রহমানের কাছে বিয়ে দেন। শিরিনের ঘরে তিন মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। গত ছয় বছর আগে শিরিনের স্বামী জিয়াউর রহমান কাজের সন্ধানে ইরাকে চলে যান। এরপর থেকে শিরিনের সঙ্গে দেবররা সামান্য বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন।

শুক্রবার রাতে একই ভাবে শিরিনের সঙ্গে দেবর কালু, আক্কাস, সাদ্দাম ও ইমান আলীর বাকবিতন্ডা হলে তাকে মারধর করেন। সাহেরা খাতুন মেয়েকে মারধরের বিষয়টি জেনে তাদের বাড়িতে ছোট মেয়ে মুনিয়াকে নিয়ে যান। সেখানে গেলে শিরিনের চার দেবর বৃদ্ধা সাহেরা খাতুনকে মাটিতে ফেলে লাথি, কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। মাকে বাঁচাতে তার সঙ্গে থাকা মেয়ে মুনিয়া এগিয়ে গেলে তাকে দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন। পরে মা ও মেয়েকে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চলতি দায়িত্বে (তদন্ত) ফয়সাল আহমেদ জানান, এখনো পর্যন্ত কোন অভিযোগ আমরা পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।