১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

জোড়া খুনের মামলার আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের জোড়া খুনের হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহতের পরিবারের সদস্যরা। বুধবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নিহত খন্দকার এনামুল হকের স্ত্রী তাসলিমা আক্তার বলেন, উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের খন্দকার এনামুল হক ও ইয়াছিন মিয়াকে হত্যা করা হয়। এই জোড়া হত্যাকান্ডে পর থানায় মামলা নেয়নি। পরে ২৬জনকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। মামলার পর আদালত সিআইডিকে মামলার তদন্তের দায়িত্ব প্রদান করেন। সিআইডি তদন্ত প্রতিবেদনে ২৬জন আসামী ছাড়াও আরও দুইজন আসামী সহ মোট ২৮জনকে আসামী করা হয়।

তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আদালত সকল আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। এরমধ্যে ১২জন আসামী উচ্চ আদালত থেকে ২০১৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারী জামিন লাভ করেন। বাকী ১৬জন আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি হলেও এখনো তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এমনকি পুলিশ সুপার নির্দেশ প্রদান করলেও নবীনগর থানা পুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করছে না।

তাছলিমা আক্তার আরও বলেন, সিআইডির তদন্ত প্রতিবেদনের ৩নং আসামী সাতমোড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাসুদ রানা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ হালিমের ভাই হওয়ায় আসামীদের গ্রেফতারে প্রভাব বিস্তার করছে। পাশাপাশি মামলাটি উঠিয়ে নিয়ে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে আসামী পক্ষের লোকজনেরা। ফলে আত্ম রক্ষায় জেলা শহরে সন্তানদের নিয়ে বাসা ভাড়া করে আমি বসবাস করছি। আমি আমার স্বামী ও ভগ্নিপতি হত্যার আসামীদের গ্রেফতার এবং বিচার দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে নিহত সাবেক বিজিবি সদস্য ইয়াছিন মিয়ার স্ত্রী নাসিমা বেগম ও সন্তানেরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ, ২০১৭ সালের ১ মার্চ রাতে নবীনগর উপজেলার জগন্নাথপুরে সাবেক বিজিবি সদস্য ইয়াছিন মিয়া ও তার ভায়েরা ভাই খন্দকার এনামুল হককে হত্যা করা হয়৷