১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

ব্যাংকে নৈশপ্রহরীকে হত্যার রহস্য উদঘাটন

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডের ভেতর থেকে নৈশপ্রহরী রাজেশ বিশ্বাস (২৩) এর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার ও ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে করেছে পুলিশ। ব্যাংক ডাকাতি করতে গিয়েই রাজেশ বিশ্বাসকে হত্যা করেছে ঘাতকরা। গ্রেফতারকৃতরা হলো জামাল হোসেন ওরফে মাসুদ (২৪), জামিল (২৮), মাসুম কবির (৩৮) ও সাদ্দাম হোসেন (২৭)। তারা আশুগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় বসবাস করেন।

এই বিষয়ে বুধবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় পুলিশ সুপার জানান, ঘাতকরা দ্রুত অর্থ সম্পদের মালিক হতে ব্যাংক লুটপাটের পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী তারা ব্যাংকের জানালার গ্রিল কেটে ব্যাংকের ভেতরে ঢুকে কিছু সময় অবস্থান করার পর সিসি ক্যামেরা অচল করে দেয়। এরপর নৈশপ্রহরী রাজেশ বিশ্বাসকে তাদের হাতে থাকা শাবল ও র‌্যাঞ্জ দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে হত্যা করে। পরে ব্যাংকের ভল্ট ভেঙ্গে লুটপাটের চেষ্টা করলেও ভল্ট ভাঙ্গতে না পারায় তারা লুট করতে পারেনি।

তিনি আরো জানান, ক্রাইম সিন পর্যালোচনা করে তাদের সনাক্ত করে ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে প্রধান হোতা সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতে জামাল হোসেন ওরফে মাসুদ ১৬৪ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গ্রেফতার মাসুদ জানায় ঘটনার সাথে ৪ জন ছাড়াও আরও অনেকের নাম প্রকাশ করেছে।

উল্লেখ্য গত শনিবার রাতে আশুগঞ্জে ব্যাংকটির শাখা থেকে নৈশপ্রহরী রাজের বিশ্বাসের হাত, পা ও মুখ বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। সে সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার চান্দপুর এলাকার ক্ষিরোদ বিশ্বাসের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) রইচ উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর দপ্তর) আবু সাঈদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোজাম্মেল হোসেন রেজাসহ জেলার সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নবীনগরে পৃথক ঘটনায় ২ জন…