১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

কসবায় এসিল্যান্ড আসার খবরে বিয়ের আসর থেকে পালিয়েছে বর-কনে

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় বিয়ে বাড়িতে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আসার খবরে বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে গেছে অপ্রাপ্ত বয়স্ক কনে ও বর। তাদের সাথে দুই পরিবারের অভিভাবকরাও পালিয়ে যায়।

বুধবার দুপুরে কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের বংশীপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের বংশীপাড়ার এক যুবকের সাথে তারই মামাতো বোন আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ গ্রামের গ্রামের বাসিন্দা ও নবম শ্রেনীর ছাত্রীর বুধবার দুপুরে বরের বাড়িতে হওয়ার কথা ছিলো।

কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন করলে ভ্রাম্যমান আদালতের ভয় আছে এই শঙ্কায় কনেকে একদিন আগেই বরের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পেরে বুধবার দুপুরে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাসিবা খাঁন পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। এসিল্যান্ড যাওয়ার আগেই বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে যায় অপ্রাপ্ত বয়স্ক কনে ও বর। পাশাপাশি পালিয়ে যায় বর-কনের অভিভাবকরাও। ভ্রাম্যমান আদালত বিয়ে বাড়িতে গিয়ে কাউকে খুঁজে পায়নি।

পরে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাসিবা খাঁন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে কনে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেয়ার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে দায়িত্ব দেন।

এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকারী উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাসিবা খাঁন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বাল্য বিয়ের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।