১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

অনলাইন কোরবানির পশুর হাট চালুকরণ উপলক্ষ্যে ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল আযহা উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অনলাইন কোরবানির পশুর হাট চালুকরণ উপলক্ষ্যে এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভা বৃহস্পতিবার সকালে অনুষ্ঠিত হয়।সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ দৌলা খাঁন।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়–য়ার সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা আল-মামুন সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজুর রহমান ওলিও, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লোকমান হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক এম.এ.এইচ মাহবুব আলম।

ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় আলোচনায় অংশ নেন জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ এবিএম সাইফুজ্জামান, সদর উপজেলা ভেটেরেনারী সার্জন ডাঃ নূরে আলম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সদস্য সচিব দীপক চৌধুরী বাপ্পী, সাংবাদিক মোঃ আরজু, মনজুরুল আলম, আ.ফ.ম কাউছার এমরান, জাবেদ রহিম বিজন, পিযুষ কান্তি আচার্য, মোঃ বাহারুল ইসলাম মোল্লা, মোঃ মনির হোসেন, উজ্জ্বল চক্রবর্তী, শিহাব উদ্দিন বিপু, বিশ্বজিত পাল, শফিকুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক ফরিদা নাজমীন, মোঃ সাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় জেলার সাংবাদিক, শিক্ষক, সরকারি কর্মকর্তা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ এবিএম সাইফুজ্জামান জানান, জেলায় ১২ হাজার ৪৫৭টি খামারে ১ লাখ ২ হাজার ২৭৪টি পশু মজুদ রয়েছে। ইতিমধ্যেই জেলার অনলাইন পশুর হাটে ১ হাজার দুইশত পশু বিক্রি হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ দৌলা খাঁন বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে হাটে না গিয়ে অনলাইনে খামারিদের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে কোরবানীর পশু ক্রয়ের জন্য মানুষকে সচেতন করতে হবে। এ ব্যাপারে জেলার সাংবাদিকগনকে অগ্রনী ভ‚মিকা পালন করতে হবে। জনগণকে সচেতন করতে হবে।

তিনি কোন অবস্থাতেই সড়ক, মহাসড়কের পাশে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে পশুর হাট বসতে দেয়া হবেনা। কেউ যদি এই সিদ্ধান্ত অমান্য করেন তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, পশু হাটগুলোতে ক্রেতা ও বিক্রেতাকে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে। স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে। তিনি বয়স্ক ও শিশুদেরকে পশুর হাটে না যাওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, পশুর হাটগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। জাল টাকা সনাক্তকরনে হাটগুলোতে মেশিন নিয়ে ব্যাংকের বুথ বসানো হবে।