৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ২৭ ফেব্রুয়ারী খতমে নবুওয়াত মহাসম্মেলন

 

স্টাফ রিপোর্টার:

সরকারিভাবে কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণা দাবিতে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় খতমে নবুওয়াত মহাসম্মেলনের ডাক দিয়েছে আন্তর্জাতিক মজলিশে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত সংগঠন। আর এ সম্মেলনে জেলার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জমায়েত হবে সংবাদ সম্মেলনে ঘোষনা দিয়েছেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। স্মরনকালের এ মহাসমাবেশ সফলে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করেছে সংগঠনটি। তাদের প্রস্তুতি এখন শেষ পর্যায়ে।

রোববার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসায় এ নিয়ে এক সংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিসা মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষা সচিব মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী।

আন্তর্জাতিক মজলিশে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াতের জেলা শাখা আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসার সদরে মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস মাওলানা আশেকি এলাহি ইব্রাহীমী, দারুল আরকাম মাদ্রাসার মহাপরিচালক শায়খ সাজিদুর রহমান, জামেয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মুফতি মোবারক উল্ল¬াহ, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি খ. আ. ম. রশিদুল ইসলাম, টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি মঞ্জুরুল আলম প্রমূখ।

সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা জানান, ঐতিহাসিক এ সম্মেলন ঘিরে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। কোন ধরনের অনভিপ্রেত ঘটনা যাতে সংগঠিত না হয় সে জন্য প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে আন্তর্জাতিক মজলিশে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশের সভাপতি ও হেফাজতের ইসলামের আমির শাহ্ আহমদ শফি উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। এছাড়াও দেশবরেণ্য আলেমগণ উপস্থিত থাকার কথা জানিয়েছেন। আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০টায় জেলা ঈদগাহ মাঠে সম্মেলন শুরু হবে। সম্মেলনে জেলাবাসীকে যোগ দেয়ার আহবান জানিয়েছেন আয়োজকরা।

বক্তারা বলেন, অবিলম্বে সরকারী ভাবে কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষনার দাবি জানান। এতে বলা হয় জেলায় মাত্র ১৭শ কাদিয়ান রয়েছে। তাদের অমুসলিম ঘোষনা করার জন্য এত বড় শান্তিপূর্ন সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছে। কোন প্রকার সংঘাত সহিংসতা আলেম সমাজ ও মুসলিম সমাজ চায় না বলেই তো অহিংস আন্দোলনের ডাক দেয়া হয়েছে। যতদিন তাদের অমুসলিম ঘোষনা না করা হবে ততদিন এ শান্তিপূর্ন আন্দোলন চলবে। সাংবাদিক সম্মেলনে কাদিয়ানদের কাফের ঘোষণার দাবিতে বিভিন্ন তথ্য ও যুক্তি তুলে ধরা হয়। সম্মেলনে যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে জেলা বাসীকে সোচ্চার ভূমিকা পালন করার আহবান জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলন শেষে সম্মেলনের সফলতা কামনা ও দেশ, জাতির কল্যাণে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত সংবাদকর্মী ও জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসার শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন