১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে রোগী ও অসহায়দের মাঝে ফল বিতরণ

এনবি ডেস্কঃ
বৃদ্ধ মালেক পাঁচ সন্তানের জনক। তিন মেয়ে ও দুই ছেলের কারোর সাথেই যোগাযোগ নেই বেশ কয়েক বছর। মানুষের কাছে হাত পেতে তাঁর চলা। শেষ কবে ফল খেয়েছিলেন মনে করতে পারছিলেন না হবিগঞ্জের ওই ব্যক্তি। অনেক ভেবে চিন্তে বললেন কয়েক মাস আগে কলা কিনে খেয়েছিলেন। প্যাকেট ভর্তি ফল পেয়ে রাজ্যের হাসি বৃদ্ধ মালেকের মুখে। ফল নিয়ে আসা কয়েকজন মিলে খাওয়াতেও সহযোগিতা করলেন।

শায়েস্তগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা বৃদ্ধ আব্দুল আজিজ এক চোখে দেখেন না। দুই মেয়ের জনক ওই ব্যক্তিও চলেন মানুষের কাছে হাত পেতে। একসাথে এত ফল আগে কখনো খাওয়ার সুযোগ হয় নি জানিয়ে তিনিও এক গাল হেসে নিলেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে জংশন স্টেশনে কথা হয় ওই দুই বৃদ্ধসহ আরো কয়েকজনের সাথে। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার দুপুরে হাতে ফল পেয়ে তাঁদেরকে বেশ উৎফুল্ল দেখায়। অনেকেই এমন উদ্যোগের প্রশংসা করেন।
বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে রোগীদের প্রতি ভিন্নরকম এ ভালোবাসা দেখিয়েছে ‘আত্মীয়’ নামে রক্তদানের একটি সংগঠন। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এম.পি ফল বিতরণ কার্যক্রমে অর্থায়ন করেন। আনিসুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) আসনের সংসদ সদস্য।

প্রথমে শুক্রবার দুপুরে উদ্যোগে হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের মাঝে ফল বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহ আলম, আখাউড়া পৌরসভার মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কালজ, আখাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আরিফুল আমীনের স্ত্রী সালেহা নাসরিন আরিফ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রুহুল আমীন খাদেম, প্রভাষক মো. হাফিজুর রহমান, যুবলীগ নেতা আবু কাউছার ভূঁইয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শাহবুদ্দিন বেগ শাপলু, সাধারন সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন নয়ন, আত্মীয়ের প্রতিষ্ঠাতা সমীর চক্রবর্তী, সমন্বয়ক শেখ দীপু, এমআরআই রাকিব, সুজন সাহা, রাকিবা হাবিব, হৃদয় দেব। পরে আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশন ও গাজীর বাজার এলাকায় ফল বিতরণ করা হয়। প্রায় তিনশ’ জনের মাঝে আপেল, কমলা, আঙ্গুর, বড়ই, খেজুর ও কলা দেয়া হয়।

আত্মীয়ের প্রতিষ্ঠাতা সমীর চক্রবর্তী জানান, মূলত রক্তদানের সংগঠন হলেও ব্যতিক্রম সামাজিক কার্যক্রম করা হয় সংগঠনটির উদ্যোগে। এরই অংশ হিসেবে সংগঠনের সঙ্গে যুক্তদের অর্থায়নে ভালোবাসা দিবসে ফল বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়। বিষয়টি জানতে পেরে আইনমন্ত্রী মহোদয়ও আর্থিক সহযোগিতা করেন।