২৪শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৮ই জুলাই, ২০২০ ইং

আখাউড়ায় স্বামীর পরকীয়ার খবরে স্ত্রীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় সুমনা আক্তার-(২৮) নামে এক নারী আত্মহত্যা করেছেন। গত শনিবার রাতে উপজেলার মোগড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরিবারের লোকজনের অভিযোগ স্বামী পারভেজ আলম পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছেন- এমন খবরে সুমনা আক্তার আত্মহত্যা করেছেন।

সুমনা আক্তার আখাউড়া উপজেলার মোগড়া গ্রামের আব্দুল হালিমের মেয়ে এবং নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ি উপজেলার আবুল কাসেম পাটোয়ারির ছেলে মোঃ পারভেজ আলমের স্ত্রী। তিনি দুই ছেলে সন্তানেন জননী।

সুমনার মামা ইয়াছিন মিয়া ও চাচাতো ভাই ফারুক মিয়া জানান, শনিবার সন্ধ্যায় বাবার বাড়িতে কীটনাশক পান করে সুমনা। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে মারা যান তিনি। গতকাল রবিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে তার লাশের ময়না তদন্ত স¤পন্ন হয়।

সুমনার পরিবারিক সূত্র জানায়, প্রায় ১১ বছর আগে সুমনার সাথে পারভেজের বিয়ে হয়। পারভেজ ঢাকায় টাইলস মিস্ত্রির কাজ করেন। দাম্পত্য জীবনে তারা দুই ছেলে সন্তানের জনক-জননী। পরিবার নিয়ে পারভেজ ঢাকায় বসবাস করতো। সম্প্রতি তাদের মধ্যে মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। গত দুইদিন আগে সুমনা ঢাকা থেকে বাবার বাড়িতে চলে আসে। শনিবার সন্ধ্যায় সে চালের মধ্যে দেয়ার জন্য রাখা ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। প্রথমে তাকে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়।

সুমনার পরিবারের অভিযোগ, স্বামী অন্যত্র বিয়ে করেছে কিংবা স্বামীর পরকীয়া আছে- এমন বিষয় জানতে পেরে সে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

অভিযুক্ত পারভেজ জানান, স্ত্রীর সাথে মনোমালিন্যের জের ধরে তিনি একজনের সাথে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। কিন্তু এখন আর সেই সম্পর্ক নেই। বিষয়টি তিনি স্ত্রীকে জানিয়েছেনও। কিন্তু এরপরও কেন সে আত্মহত্যা করলো তা বুঝতে পারছেন না।

এ ব্যাপারে আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ রসুল আহমেদ নিজামী রবিবার বিকেলে জানান, এমন একটি খবর আমরা পেয়েছি। তবে এ বিষয়ে লিখিত কোনো অভিযোগ কেউ আমাদেরকে দেয় নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আওয়ামী লীগ নেতা এড. খোকনের…

পৃথক ঘটনায় ২ জন খুন