২৩শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৭ই জুলাই, ২০২০ ইং

প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যক্তির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সরাইলে উত্তেজনা

স্টাফ রির্পোটার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার রাজাপুর গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত আবদুল্লাহ মিয়া-(৬৫) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার মোহাম্মদপুর সিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবদুল্লাহ মিয়া মারা যান। নিহত আবদুল্লাহ মিয়া উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের আবদুল কাদিরের ছেলে।

এদিকে আবদুল্লাহ মিয়ার মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে গ্রামে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ ওই গ্রামে অবস্থান করছে।

নিহতের স্বজন, পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত ১৩ অক্টোবর (রোববার) সন্ধ্যায় রাজাপুর গ্রামের চকবাজারে সাফিল মিয়ার সাথে তার প্রতিবেশী মনির মিয়ার বাকবিতন্ডা হয়। এ ঘটনার জেল ধরে মনির মিয়ার লোকজন সাফিল মিয়ার বাড়িতে হামলা চালায় ও বাড়ির লোকজনকে বেদম মারধোর করে। এ সময় প্রতিপক্ষেরে মারধোরে গুরুতর আহত হন আবদুল্লাহ মিয়া। আহতবস্থায় তাকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার মোহাম্মদপুর সিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ১৩ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে শুক্রবার ভোর ৫টায় আবদুল্লাহ মিয়া মারা যান। তার মৃত্যুর খবর এলাকায় পৌছা মাত্রই রাজাপুর গ্রামে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে অরুয়াইল ফাঁড়ির পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে।

এ ব্যাপারে সরাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ নূরুল হক বলেন, প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে আবদুল্লাহ মিয়ার পক্ষের দায়েরকৃত মামলাটিই এখন আদালতের সহায়তায় হত্যা মামলায় হবে। তিনি বলেন, রাজাপুর গ্রামে পুলিশ অবস্থান করছে ও আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

পৃথক ঘটনায় ২ জন খুন