১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

 নোটিশ পেয়ে সরাইলে ভুয়া চিকিৎসক উধাও!

স্টাফ রিপোর্টার, 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে সিভিল সার্জনের নোটিশ পেয়ে উধাও হয়ে গেছেন ভুয়া চিকিৎসক কামাল উদ্দিন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে এম.বি.বি.এস চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে সরাইলের মনোয়ারা হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগীদেরকে চিকিৎসা সেবা দিতেন।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পেরে সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলম গত ১ অক্টোবর (স্মারক নং-সিএসবি/শা-৩/২০১৯/১২০৫৪) চিকিৎসক কামাল উদ্দিনকে একটি নোটিশ প্রদান করেন।

নোটিশে বলা হয় “ উপযুক্ত বিষয়ের আলোকে আপনাকে জানানো যাইতেছে যে, আপনি মনোয়ারা হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, সরাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসছেন। আপনার চিকৎসা সেবার স্ব-পক্ষে সকল সনদপত্রের মূলকপি প্রেফসনাল পরীক্ষা সমূহের মূল মার্কশীটসহ ফটোকপি অত্র কার্যালয়ে প্রয়োজন।

এমতাবস্থায় আগামী ০৬/১০/২০১৯ইং তারিখে নিম্নস্বাক্ষরকারীর কার্যালয়ে দুপুর ১১টার সময় আপনার বিএমডিসি রেজিষ্ট্রেশনসহ অন্যান্য সকল সনদপত্রের মূলকপি ও ফটোকপিসহ স্ব-শরীরে হাজির হওয়ার জন্য বলা হইল।
কিন্তু সিভিল সার্জনের নোটিশ পেয়ে গত ৬ অক্টোবর কাগজপত্র নিয়ে সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে হাজির হননি ভূয়া চিকিৎসক কামাল উদ্দিন।

এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহআলম বলেন, চিকিৎসক কামাল উদ্দিনের সকল কাগজপত্রের সাথে মনোয়ারা হাসপাতালের পরিচালককে কামাল উদ্দিনকে নিয়োগ দেয়ার কাগজপত্র, হাসপাতালের লাইসেন্স নিয়ে আসার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু ভুয়া চিকিৎসক কামাল উদ্দিন উপস্থিত হননি এবং মনোয়ারা হাসপাতালের পরিচালক কামাল উদ্দিনের নিয়োগপত্র দেখাতে পারেনি এবং হাসপাতালের লাইসেন্স ও কাগজপত্র নবায়ন ছিলনা।

তিনি বলেন, হাসপাতালের পরিচালককে ভুয়া চিকিৎসক কামাল উদ্দিন যাতে মনোয়ারা হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারসহ সরাইলের কোন ক্লিনিক, হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, কোন ফার্মেসীতে বসলে তাকে (সিভিল সার্জন) অথবা আইনশৃংখলা বাহিনীকে অবহিত করার জন্য বলা হয়। যদি কোন প্রতিষ্ঠান কামাল উদ্দিনকে বসায় তাহলে সেই প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল করা হবে বলে তিনি জানান।