৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ১৩ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

নাসিরনগর হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ রেখে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের পলায়ন !

এনবি ডেস্ক:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক গৃহবধূর লাশ রেখে শ্বশুরবাড়ির লোকজন পালিয়ে গেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার রাত একটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ওই গৃহবধূর নাম রিবা আক্তার (২২)। তিনি উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের সৌদি প্রবাসি কাইয়ুম মিয়ার মেয়ে।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,হাসপাতালের জরুরি বিভাগে মৃত এক নারীকে রাত একটার দিকে এ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে আসে ২ জন যুবক। হাসপাতালের বারান্দায় লাশ ফেলে কৌশলে পালিয়ে যান তারা।

কর্তব্যরত চিকিৎসক শোয়েব মোঃ শাহরিয়ার পরীক্ষা করে জানান,রোগী মারা গেছেন। রাতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে জানায়। আজ শনিবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহত নারীর মামা ফারুক মিয়া অভিযোগ করে বলেন,শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁর ভাগনিকে হত্যা করে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে গেছে। তাঁর ভাগনিকে বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেয়ার জন্য প্রায় সময় নির্যাতন করা হতো। গতকালও রিবাকে নির্যাতন করা হয়েছে। তিনি আরো জানান,২০১৭ সালে কচুয়ার একেই গ্রামের আবু বক্করের ছেলে লিটন মিয়ার সাথে তার ভাগনির বিয়ে হয়েছিল। ১০ মাসের একটি ছেলে রয়েছে।

সকালে চাতলপাড় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে মাধ্যমে জানতে পারি সদর হাসপাতালে একটি মেয়ে লাশ পড়ে রয়েছে। আমরা হাসপাতালে গিয়ে লাশটি শনাক্ত করি।

থানার এস আই বাবুল মিয়া জানান, হাসপাতাল কতৃপক্ষ পুলিশকে জানালে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নেয়া হয়েছে। তবে লাশের ময়নাতদন্ত ছাড়া কিছু বলা যাচ্ছে না। লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।