৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং

সরাইলে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে ওসিসহ আহত- ২০

মোঃ রাসেল আহাম্মেদ,এনবি ডেস্ক:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে সরকারি জায়গায় অবৈধভাবে নির্মিত স্থাপনা উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ উভয়পক্ষের ২০জন আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে উপজেলা সদরের উচালিয়াপাড়া মোড়ে এই সংঘর্ষ হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ব্যাপক লাঠিপেটা ৬ রাউন্ড রাবার বুলেট এবং ৪ রাউন্ড টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আহত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে এবং বাকীরা সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি ও চিকিৎসা নেয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত সোমবার দুপুরে সরাইল-নাসিরনগর-লাখাই আঞ্চলিক সড়কের সরাইলের উচালিয়াপাড়া মোড়ের উভয় পাশে সড়ক ও জনপথের জায়গায় অবৈধভাবে নির্মিত স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এএসএম মোসা।

উচ্ছেদ অভিযান চলাকে কেন্দ্র করে সরাইল ডিজিটাল হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক ইউনুস মিয়ার সাথে উচালিয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক মোঃ শামীম মিয়ার প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। পরে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করেন। এ ঘটনার জের ধরে বুধবার দুপুরে উচালিয়াপাড়া মোড়ে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহাদাৎ হোসেন টিটুর নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করে। এ সময় উভয়পক্ষের সংঘর্ষে ওসি শাহাদাৎ হোসেন টিটু, তিন পুলিশ সদস্যসহ উভয়পক্ষের ২০জন আহত হয়। পরে পুলিশ ব্যাপক লাঠিপেটা ও ৬ রাউন্ড রাবার বুলেট এবং ৪ রাউন্ড টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

আহতদের মধ্যে ওসি শাহাদাৎ হোসেন টিটুকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত পুলিশ সদস্য এএসআই আলাউদ্দিন, এএস আই গোপীনাথ সরকার ও এনামুল হকসহ বাকীরা সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি ও চিকৎসা নেয়।

এ ব্যাপারে সরাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নূরুল হক জানান, আহত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।