১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

বাঞ্ছারামপুর থানা হাজতে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু

এনবি ডেস্ক:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে থানা হাজতে অজ্ঞাত (২৭) এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। শনিবার দুপুর ৩টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি থানা হাজতের জানালার গ্রিলের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে! জানালার গ্রিলে ফাঁস লাগিয়ে কীভাবে আত্মহত্যা করে এই নিয়ে নানান প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। গত শুক্রবার রাতে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা সদরে নৈশ প্রহরীরা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এই বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নবীনগর সার্কেল) মেহেদী হাসান জানান,‘‘গতকাল (শুক্রবার) রাতে উপজেলা পরিষদের নৈশ প্রহরীরা এক যুবককে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। আজ (শনিবার) দুপুরে থানা হাজতের জানালার গ্রিলে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

এই বিষয়ে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম বলেন,‘‘আমাদের অফিসার্স ক্লাবে চুরি করার সময় নাইট গার্ডরা চোরকে আটক করলে পুলিশকে খবর দিয়ে থানায় প্রেরণ করা হয়। এখানে গণপিটুনির কোন ঘটনা ঘটেনি।

বাঞ্ছারামপুর মডেল থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত ১১ টার দিকে উপজেলা পরিষদের ভিতরে অফিসার্স ক্লাবে কয়েকজন চুরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় উপজেলা পরিষদের নিরাপত্তা প্রহরী জামাল হোসেন তাদের দেখতে পেয়ে ধাওয়া করেন। এই সময় বাজারের নিরাপত্তা প্রহরী সহ এলাকাবাসী অজ্ঞাতনামা এক যুবককে আটক করে এবং তাকে পুলিশে সোপর্দ করে। গতকাল শনিবার দুপুর ৩টার দিকে পুলিশ তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

এই বিষয়ে উপজেলা পরিষদের নিরাপত্তা প্রহরী জামাল হোসেন জানান,‘‘রাতে কয়েকজন তালা কেটে অফিসার্স ক্লাবে প্রবেশ করে আইপি এস সহ অনেক মালামাল চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় আমি দেখে চিৎকার করলে বাজারের নিরাপত্তা প্রহরীরা এগিয়ে আসলে একজন আটক করে ইউএনও স্যারকে জানাই। স্যার থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে ১১টার দিকে তাকে থানায় নিয়ে যায়।

এই বিষয়ে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার জানান ডাঃ আতাউল করিম মনির,‘‘দুপুর ৩টার দিকে পুলিশ ২৬-২৭ বছর বয়সী এক যুবককে হাসপাতালে নিয়ে আসে। আমি তাকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে মৃৃত পাই।’’