৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

৭দিন বন্ধ থাকার পর খুলে দেয়া হয়েছে সরাইলের শাহবাজপুর ব্রীজ

মীর মোঃ শাহীন, এনবি ডেক্সঃ
বন্ধ থাকার ৭দিন পর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার ক্ষতিগ্রস্ত শাহবাজপুর ব্রীজ যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে।

সোমবার সকাল ১০টা থেকে ব্রীজ দিয়ে পুরোদমে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। তবে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজের উপর দিয়ে ২২টনের অধিক ওজনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সড়ক ও জনপথ বিভাগ। এদিকে ব্রীজটি খুলে দেয়ায় আস্তে আস্তে মহাসড়কের যানজট কমতে শুরু করেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং হাইওয়ে পুলিশ জানায়, ক্ষতিগ্রস্ত ব্রীজের উপর ষ্টিলের বেইলী ব্রীজ নির্মান কাজ গতকাল সোমবার সকালে শেষ হয়। পরে সকালে কয়েক দফা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর সকাল ১০টার দিকে ব্রীজটি যানবাহনের চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়। এর পর থেকে ব্রীজটির উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরু হয়।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শামীম-আল মামুন বলেন, ব্রীজের উপর দিয়ে ২২টনের বেশি ওজনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া খাঁটিহাতা বিশ্বরোড হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ হোসেন সরকার বলেন, ব্রীজের উপর গাড়ী নিয়ন্ত্রন করে উঠতে দেয়া হচ্ছে। এক সাথে অধিক যানবাহন যাতে ব্রীজে উঠতে না পারে সে ব্যবস্থা করা হয়েছে।
সিলেটের কাচামাল ব্যবসায়ী আবুল ফজল জানান, ট্রাকে কাঁচা মাল (আলু) নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে মহাসড়কে আটকে ছিলাম। ব্রীজটি খুলে দেয়ায় তিনি স্বস্তি প্রকাশ করেন।

এর আগে গত ১৮ জুন সরাইল উপজেলার শাহবাজপুর এলাকায় তিতাস নদীর ওপর ব্রীজের চতুর্থ স্প্যানের ফুটপাতসহ রেলিং ভেঙে নদীতে পড়ে যায়। এরপর দুর্ঘটনার আশঙ্কায় সেতুটি দিয়ে ভারী ও মাঝারি যানবাহন চলাচল বন্ধের নির্দেশনা দেয় সওজ বিভাগ। তবে সীমিত আকারে ব্রীজের একপাশ দিয়ে হালকা যানবাহন চালচাল স্বাভাবিক রাখা হয়।