৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ১৩ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেল চিকিৎসা নিতে, ডাক্তার বলে বিকেলে আমার চেম্বারে আসেন,

এনবি প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে এক রোগীকে তার প্রাইভেট চেম্বারে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে খালেদা বেগম-(৩২) নামে এক রোগী নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত ডেন্টাল সার্জন ডাঃ আবদুল্লাহ আল বারীর কাছে চিকিৎসা নিতে গেলে তিনি রোগীকে এই পরামর্শ দেন।

অসুস্থ খালেদা বেগম অভিযোগ করে বলেন, গত দু’দিন ধরে দাঁতের ব্যাথায় অস্থির হয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে স্বামী দেলোয়ার হোসেনকে সাথে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেন্টাল সার্জন ডাঃ আবদুল্লাহ আল বারীর (বিডিএস) কক্ষে যান।

চিকিৎসক তার কথা শুনে মোবাইলের টর্চ লাইট দিয়ে তার দাঁত দেখেন। পরে তিনি তাকে ( খালেদা বেগম) বিকেলে হাসপাতাল রোডে অবস্থিত গ্রামীণ জেনারেল হাসপাতালে তাঁর ( চিকিৎসকের) প্রাইভেট চেম্বারে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

এ সময় ডাঃ আবদুল্লাহ আল বারী রোগী খালেদা বেগমকে বলেন, এটি সরকারি হাসপাতাল। এখানে চিকিৎসা করার মতো তেমন যন্ত্রপাতি নাই। বিকেলে আমার প্রাইভেট চেম্বারে আসেন। ভালো করে দেখে দেবো।

রোগীর স্বামী দেলোয়ার হোসেন বলেন, সরকারি হাসপাতাল হলো গরীব ও সাধারণ রোগীদের জন্য। আর সেই সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকেরা যদি গরীব রোগীদের প্রাইভেট চেম্বারে যাওয়ার পরামর্শ দেন, তাহলে গরীব রোগীরা যাবে কোথায় ?
এ ব্যাপারে ডেন্টাল সার্জন আবদুল্লাহ আল বারী (বিডিএস) সাংবাদিকদের বলেন, ওই রোগীর দাঁতের ভেতরে ছোট্ট একটি কাঠি দেখতে পাই। ওই কাঠি বের করার কোন যন্ত্র সরকারি হাসপাতালে নেই। তাই বিকেলে তাকে আমার প্রাইভেট চেম্বারে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (টিএইচএ) ডাঃ সাইমুল হুদা বলেন, সরকারি হাসপাতালে কর্তব্য চলাকালীন কোন সরকারি ডাক্তার কখনো কোন রোগীকে প্রাইভেট চেম্বারে যাওয়ার পরামর্শ দিতে পারেন না। ভুক্তভোগী রোগী আমাকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানালে, ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডাঃ শাহ আলম বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।