১৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

আখাউড়ায় গ্রামীণফোনের টাওয়ারে যন্ত্রাংশ চুরির অভিযোগে তিনজন আটক

এনবি প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় মোবাইল ফোন সেবাদাতা কোম্পানি গ্রামীণফোনের টাওয়ারে যন্ত্রাংশ চুরির অভিযোগে তিনজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী।

রোববার (৯ জুন) দিনগত উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের রাণীখার গ্রামের ওই টাওয়ার থেকে তিনজনকে আটক করা হয়। এসময় তাদের ব্যবহৃত একটি পিকআপ গাড়ি ও কিছু যন্ত্রাংশ জব্দ করা হয়।

এ তিনজন হলেন গ্রামীণফোনের টাওয়ার ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান মেটাল প্লাসের কর্মচারী ও গাড়িচালক। তারা মেটাল প্লাস কিংবা গ্রামীণফোন সংশ্লিষ্ট কাউকে না জানিয়ে রাতের অন্ধকারে চুরির উদ্দেশ্যে ওই টাওয়ারের কন্ট্রোল রুমে ঢুকেছিলেন বলে জানাচ্ছে পুলিশ।

আটক তিনজন হলেন- কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার ভৈরবপুর এলাকার বাসিন্দা মেটাল প্লাসের কর্মচারী রুবেল মিয়া (২৮), একই এলাকার পঞ্চবটির বাসিন্দা মোবারক মিয়া (২২) ও গাড়িচালক সাদ্দাম হোসেন (৩০)।

গ্রামবাসীদের বরাত দিয়ে ধরখার পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক তারেক হোসেন বাংলানিউজকে জানান, রাত পৌনে ১০টার দিকে তিনজন ওই এলাকায় একটি পিকআপ ভ্যান নিয়ে গিয়ে টাওয়ারের কন্ট্রোল রুমে ঢুকে ব্যাটারিসহ কিছু যন্ত্রাংশ গাড়িতে তুলে নেন। এসময় টাওয়ারের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পার্শ্ববর্তী বাড়ির বাসিন্দা মনিরুল ইসলাম ভূঁইয়া তাদের দেখতে পেয়ে এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করেন। তখন তারা নিজেদের টাওয়ারের কাজে নিযুক্ত কর্মী হিসেবে পরিচয় দেন। বিষয়টি সন্দেহজনক মনে করে মনিরুল কোম্পানির ঊর্ধ্বতন একজনকে কল করার চেষ্টা করলে তিনজন তার ওপর হামলা করেন এবং তাকে কন্ট্রোল রুমে আটকে ফেলার চেষ্টা করেন। এসময় তাদের সঙ্গে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মনিরুল চিৎকার করলে তার বাড়ির লোকজনসহ অন্য প্রতিবেশিরা এসে তিনজনকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের ধরখার ফাঁড়িতে নিয়ে আসে।

জানতে চাইলে টাওয়ারের নিরাপত্তাকর্মী মনিরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, গত এপ্রিল মাসে এই টাওয়ারে আরেকবার ব্যাটারি চুরি হয়েছিল। রমজান মাসেও ঝড়ের সময় একবার টাওয়ারে যন্ত্রাংশ চুরির চেষ্টা করা হয়। এসব ঘটনা গ্রামীণফোনকে জানালে তারা স্থানীয় সন্দেহভাজনদের একটি তালিকা করে পাঠানোর নির্দেশ দেন। কিন্তু আজকে মেটাল প্লাসের লোকজনের ঘটনা দেখে ফেলায় প্রমাণিত হলো, স্থানীয়রা নয়, চুরির সঙ্গে এরাই জড়িত।

এদিকে চুরির বিষয়ে খবর পেয়ে মেটাল প্লাসের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ইনচার্জ শহীদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তিনি বলেন, রাতের বেলা টাওয়ারে মেরামত কাজ করার কোনো নিয়ম নেই। নিরাপত্তাকর্মী মনিরুলের মাধ্যমে বিষয়টি জানার পর তাদের আটক করতে বলেছি। যোগাযোগ করা হলে গ্রামীণফোনের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক তাহমিদ হোসেন বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। সোমবার (১০ জুন) সকালে এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।