,

থানায় তদ্বির করতে গিয়ে ভুয়া এএসপিসহ তিনজন আটক

এনবি প্রতিনিধিঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের ভুয়া এক সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (এএসপি)সহ তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার বিকেল সাড়ে তিনটায় সদর মডেল থানায় মামলা সংক্রান্ত ব্যাপারে তদ্বির করতে
তারা তারা আটক হন।
আটককৃতরা হলেন, সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের বাদশা আলমের
ছেলে কাউসার আলম- (৩২), তার সহযোগী একই ইউনিয়নের আব্দুল
খালেকের ছেলে ফায়েজ মিয়া-(৩৫) এবং তার ভাই কাউসার মিয়া-(২৫)। এর
মধ্যে মোঃ কাউছার আলম নিজেকে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার বলে
পরিচয় দেন।
পুলিশ জানায়, গতকাল বুধবার বিকেলে কাউছার আলম তার দুই
সহযোগীকে নিয়ে থানার ডিউটি অফিসারের রুমে ঢুকে নিজেকে
ঢাকার এসবি শাখার সিনিয়র এএসপি বলে পরিচয় দেন। পরে তিনি
জানান, কিছুদিন আগে তার এক আত্মীয়ের বাসায় চুরি হয়। কিন্তু
পুলিশ বিষয়টির সঠিক তদন্ত করেনি। তিনি এ ঘটনায় চুরির ঘটনায়
মামলা নিতে পুলিশকে চাপ দিতে থাকেন।
বিষয়টি থানার অফিসারদের সন্দেহ হলে তাদেরকে আটক করা হয়। প্রাথমিক
জিজ্ঞাসাবাদে কাউছার আলম নিজেকে ভুয়া এএসপি বলে স্বীকার করেছে।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
(ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান,
বিকেলে কাউছার আলম থানায় এসে নিজেকে সিনিয়র সহকারী পুলিশ
সুপার বলে পরিচয় দিয়ে তার এক আত্মীয়ের মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে তদবির
করেন। এ সময় তার আচরণ সন্দেহজনক মনে হলে খোঁজ নিয়ে জানা যায়
তিনি পুলিশের কেউ নন। পরে তাকে ও তার দুই সহযোগীকে আটক করা হয়।
তিনি আরো বলেন, আটককৃত কাউছার বিভিন্ন সময় বিভিন্ন
সরকারি- বে-সরকারি অফিসে গিয়ে নিজেকে এএসপি পরিচয় দিয়ে
মানুষদের সাথে প্রতারণা করত। এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা
নেয়া হবে।