,

অবশেষে কসবার সীমান্তরেখা থেকে ৩১ রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নিয়ে গেছে বিএসএফ

এনবি প্রতিনিধিঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কাজিয়াতলী সীমান্তের শূন্য রেখায় টানা ৪দিন অবস্থানকারী শিশুসহ ৩১ রোহিঙ্গা নর-নারীকে অবশেষে ফেরত নিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ।
মঙ্গলবার বেলা ১১টায় উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের কাজিয়াতলী সীমান্তের শূন্যরেখা থেকে তাদের ফিরিয়ে নেয়া হয়।
গোপীনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস.এম মান্নান জাহাঙ্গীর ও বিজিবির সূত্র বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছে।
এর আগে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে কসবা উপজেলার গোপিনাথপুর ইউনিয়নের কাজিয়াতলী সীমান্তের ২০২৯ নং পিলারের কাছ দিয়ে কাটাতারের বেড়া অতিক্রম শিশুসহ ৩১ রোহিঙ্গা নর-নারীকে বাংলাদেশের পাঠানোর চেষ্টা করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ। এ সময় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর সদস্যরা তাদের বাঁধা দিলে ৩১ রোহিঙ্গা সীমান্তের শূন্যরেখায় অবস্থান নেয়। গত ৪দিন ধরে প্রচন্ড শীতে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে রোহিঙ্গা শিশুরা। বিষয়টি সমাধানে একাধিকবার বিজিবি ও বিএসএফ’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও কোন সমাধান হয়নি।
সোমবার বিএসএফ’র পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাদের জন্য ২টি তাবু টানিয়ে দেয়া হয়। এ ছাড়া তাদেরকে খাবারও সরবরাহ করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিএসএফ তাদেরকে ফিরিয়ে নেয়।
এ ব্যাপারে কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস.এম মান্নান জাহাঙ্গীর বলেন, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ভারতীয় সীমান্তের কাটাতারের ভিতর দিয়ে ৫/৬টি গাড়িতে করে রোহিঙ্গাদের নিয়ে যায় বিএসএফ। পরে শূন্যরেখার কাছে দায়িত্বপালনরত অতিরিক্ত বিজিবি সদস্যদের চৌকিও গুছিয়ে কাজিয়াতলী ক্যাম্পে নিয়ে আসে বিজিবি।
২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ. কর্নেল মুহাম্মদ গোলাম কবির বিষয়টি মুঠোফোনে সাংবাদিকদেরকে নিশ্চিত করেছেন।